Page Nav

HIDE

Grid Style

GRID_STYLE

Post/Page

Weather Location

Popular Posts

Breaking News:

latest

ঘূর্ণিঝড় ফণি’র মোকাবিলায় দিঘা সহ সমূদ্র উপকুলে শুরু হয়ে গেল অভাবনীয় প্রশাসনিক তৎপরতা !



চন্দন বারিক, দিঘাট্রিপ.কম : ঘূর্ণিঝড়ের আগাম সতর্কবার্তা পেয়ে অভাবনীয় ভাবে প্রশাসনিক তৎপরতা শুরু হয়ে গেল দিঘা সহ সমূদ্র উপকূলবর্তী এলাকাগুলিতে। বিশেষ করে পর্যটনকেন্দ্রে যাতে কোনও রকম দুর্ঘটনা না ঘটে তা নিশ্চিত করতে চায় প্রশাসন।



এই কারনেই বৃহস্পতিবার দিঘা সংলগ্ন পদিমা-১ গ্রাম পঞ্চায়েতের অফিসে বিশেষ বৈঠকে বসলেন এনডিআরএফ আধিকারীকেরা। কিভাবে এলাকার মানুষদের সুরক্ষা দেওয়া হবে তা নিয়ে একাধিক পরিকল্পনা তৈরি হয়েছে এই বৈঠকে।

যেখানে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় পঞ্চায়েত প্রশাসন থেকে শুরু করে এলাকার বাসিন্দারাও। এই বৈঠকে স্থির হয়েছে, গ্রামে গ্রামে তৈরি হবে আপৎকালীন টিম। যারা এখনই গ্রামে ঘুরে সার্ভে করে কাঁচা বাড়ির বাসিন্দাদের পাকা বাড়ি বা প্রয়োজনে ফ্লাড সেন্টারে সরিয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করবে।



এছাড়াও এই টিমগুলির কাছে থাকছে রেসিকিউ টিমের নম্বর। প্রয়োজনে খবর দিলেই দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া সম্ভব হবে। সেই সঙ্গে এলাকায় যাতে ঝড়কে কেন্দ্র করে কোনও গুজব ছড়িয়ে পড়তে না পারে তাও নিশ্চিত করতে চাইছে প্রশাসন। এই বিষয়েও নজরদারী চালানো হচ্ছে।

পদিমা-১ অঞ্চলের উপপ্রধান কল্যান জানা জানিয়েছেন, এই এলাকায় ৪টি আইলা সেন্টার রয়েছে। এগুলি রয়েছে দিঘা ডিএ স্কুল, পদিমা প্রাইমারী স্কুল, মন্ডলা গ্রামে।  আগামী কাল ৩ তারিখ থেকে ৫ তারিখ পর্যন্ত বিপজ্জনক ভাবে বসবাসকারী মানুষদের প্রয়োজনে ফ্লাড সেন্টারে সরিয়ে দেওয়া হবে।



জেলা প্রশাসন সূত্রে খবর, একই ভাবে জেলার‍ প্রায় ৭২ কিমি বিস্তীর্ণ সমূদ্র তট এলাকায় সুরক্ষার জন্য প্রতিটি স্থানীয় প্রশাসনকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কাঁচা বাড়ি ও ঝুপড়ি বাড়িতে থাকা মানুষদের দ্রুত নিরাপদ স্থানে সরে যাওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এছাড়াও পর্যটকদের প্রয়োজনে নিরাপদ দূরত্বে চলে যাওয়ার জন্য বলা হয়েছে। প্রতিটি হোটেলের কর্মীদের সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে। ঝড়বৃষ্টি চলাকালীন যাতে কেউ হোটেলের বাইরে না বেরান সেদিকে নজর রাখতে বলা হয়েছে। সেই সঙ্গে প্রয়োজন মতো খাওয়ার জমা রাখতেও বলা হয়েছে প্রশাসনের তরফ থেকে।

সেই সঙ্গে আজ বিকেল থেকে যাতে কেউ সমূদ্রে না নামতে পারেন তা নিশ্চিত করা হচ্ছে বলে প্রশাসন সূত্রে খবর। ইতিমধ্যে প্রতিটি ঘাটে বেঁধে দেওয়া হয়েছে দড়ি। আগামী কাল থেকে সমূদ্রের ধারেও কেউ যাতে না আসেন সেদিকে নজর রাখবে প্রশাসন, ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট টিম, পুলিশ, সিভিক ভলেন্টিয়ার সহ এনডিআরএফ।



মোবাইলে আরও নিউজ আপডেট পেতে এইখানে ক্লিক করুন - Whatsapp