Page Nav

HIDE

Grid Style

GRID_STYLE

Post/Page

Weather Location

Popular Posts

Breaking News:

latest

আগামী ৭২ ঘন্টার মধ্যে আছড়ে পড়তে পারে ঘূর্ণিঝড় ফনি, দিঘা জুড়ে বিশেষ সতর্কতা জারি করে চলল প্রচার !



চন্দন বারিক, দিঘাট্রিপ.কম : ক্রমেই ঘনীভূত হচ্ছে ঘূর্ণিঝড় ফনি। ধীরে ধীরে তা এগিয়ে আসছে উপকুলের দিকে। বিশেষজ্ঞদের অনুমান, আগামী ৭২ ঘন্টার মধ্যে ঘূর্ণিঝড়টি আরও শক্তিশালী হয়ে অন্ধ্র ও ওড়িষা উপকুল হয়ে গাঙ্গেয় পশ্চিম বঙ্গে ধেয়ে আসবে।



আর এই ফণি'র প্রভাবে আগামী কয়েকটা দিন গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গে ঝড়ো হাওয়ার সঙ্গে ভারী বৃষ্টিপাতেরও সম্ভাবনা রয়েছে। আর এই কারনেই মঙ্গলবার বিকেল থেকে দিঘা পর্যটন কেন্দ্র সহ উপকুলবর্তী এলাকায় সতর্কতা জারি করে মাইক প্রচার শুরু হয়েছে।

এদিন দিঘা থানা থেকে মাইক প্রচার করে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, পরবর্তী নির্দেশিকা না আসা পর্যন্ত মৎস্যজীবিদের সমূদ্রে মাছ ধরতে নামায় নিষেধাজ্ঞা জারি থাকছে। সেই সঙ্গে পর্যটকদেরও সমূদ্রে নামার ক্ষেত্রে সতর্কতা জারি করা হয়েছে।



প্রশাসন থেকে বলা হয়েছে, জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে এলাকার সমস্ত বাসিন্দা, ব্যবসায়ী ও পর্যটকদের অনুরোধ জানানো হচ্ছে, আগামী ৭২ ঘন্টার মধ্যে ভয়াবহ ঘূর্ণিঝড় আছড়ে পড়তে পারে সমূদ্র উপকুলে। তাই আপনারা সমূদ্রের কাছাকাছি না থেকে নিরাপদ স্থানে আশ্রয় নিন। এই সময় সমূদ্রে নামা থেকে বিরত থাকার জন্যও আবেদন জানানো হচ্ছে।

মঙ্গলবার রাতে ভারতীয় মৌসম বিজ্ঞান বিভাগের প্রকাশিত আবহাওয়া রিপোর্ট অনুযায়ী আগামী ১লা মে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গে হালকা থেকে মাঝারি মাপের বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা থাকছে। সঙ্গে বাতাসের গতিবেগ থাকবে ৩০ থেকে ৪০ কিমি প্রতি ঘন্টায়।



এরপর ২রা মে ফণি এগিয়ে আসার ফলে আবহাওয়ার আরও কিছুটা অবনতি হবে এবং বৃষ্টিপাতের পরিমান আরও কিছুটা বাড়বে। সেই সঙ্গে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গে ৫০-৬০ কিমি প্রতি ঘন্টায় বাতাস বইবে।

দেখুন ভিডিওটি-

৩রা মে আবহাওয়ার ক্রমাগত অবনতি হবে। মাঝেমধ্যেই চলবে বৃষ্টিপাত। সঙ্গে ৭০-৮০ কিমি বেগে ঝড়ো হাওয়া বইবে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গে। এবং ৪র্থ মে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের ৭০-৮০ কিমি বেগে হাওয়ার সঙ্গে ভারি বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানানো হয়েছে।

আর এই সময়ের মধ্যে সমূদ্র উত্তাল থাকবে। ঘূর্ণিঝড় যতই এগিয়ে আসবে ততই ভয়াবহ হয়ে উঠবে সমূদ্র। এই কারনে মৎস্যজীবিদের সমূদ্রে মাছ ধরতে নামার ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। 

ইতিমধ্যে রাজ্য সরকারের তরফে ফনি ঘিরে কৃষিজীবিদের সতর্ক করে বিজ্ঞাপন প্রকাশিত হয়েছে। যেখানে কৃষকদের মাঠে পাকা ধান দ্রুত কেটে ঘরে তুলে নিতে বলা হয়েছে। লতানো গাছ, পান বরোজ মোটা খুঁটি দিয়ে বেঁধে দিতে বলা হয়েছে। 

মোবাইলে আরও নিউজ আপডেট পেতে এইখানে ক্লিক করুন - Whatsapp